fbpx
Creative Clan ব্লগ ফ্রিল্যান্সিং ফ্রিল্যান্সিং / আউটসোর্সিং কি?
ফ্রিল্যান্সিং / আউটসোর্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং / আউটসোর্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং একটি বহুল আলচিত শব্দ, এই শব্দটি শুনে নাই এমন মানুষ খুব কম-ই খুঁজে পাওয়া যাবে | ফ্রিল্যান্সিং শব্দটির আরেকটি পরিপূরক শব্দ হচ্ছে আউটসোর্সিং | ফ্রিল্যান্সিং এর অর্থ সহজভাবে বুঝানোর জন্যে আমি সাধারনত একটা উদাহরন দেই, মনে করি জনাব রহিম একজন ‘ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার’ এর মানে হচ্ছে তিনি তার তোলা ফটো যে কোন পত্রিকা বা  প্রতিষ্ঠানের নিকট বিক্রয় করতে পারেন | এমনি ভাবে একজন  ফ্রীলেন্সার তার পেশাগত কাজ মুক্তভাবে যে কোন প্রতিষ্ঠান এর জন্যে করতে পারেন|

আউটসোর্সিং এর মানে হচ্ছে আপনি বা আপনাদের প্রতিষ্ঠানের কাজ  অন্য কাউকে দিয়ে করিয়ে নেয়া| আর যারা এই কাজ করে থাকে তাদেরকে বলা হয় ফ্রীলেন্সার | আউটসোর্সিং মানেই ইউরোপ ও আমেরিকা থেকে টাকা উপার্জন বুঝায় না| এটা আভ্যন্তরীণ বা আন্তর্জাতিক উভয় পর্যায়ে-ই হতে পারে|

তবে হাঁ আমি পুরপুরি নিশ্চিত যে , আপনি অনলাইনে ইউরোপ আমেরিকার টাকা আপনার পকেটে ঢুকানোর বিষয়টি জানতে-ই আমার ওয়েবসাইটে এসেছেন !! আপনার ইচ্ছাকে আমি সাধুবাদ জানাই, অভিনন্দন!

আপনি পারবেন! আপনকে দিয়ে-ই হবে, করন আপনার ইচ্ছা আর আগ্রহ আছে বলে-ই আমার এই artical  পরতেছেন| আপনার প্রতি আমার অনুরোধ, এই আগ্রাহ হারাবেন না|

এইবার আসুন ফ্রিল্যান্সিং পেশা সম্পর্কে একটু জানিঃ
ফ্রীলান্সিং একটি স্মার্ট পেশা, আপনি-ই আপনার বস! ভাবতেই ভালো লাগে, তাইনা !!?  আপনি স্বাধীন, পুরো বিশ্ব-ই আপনার অফিস| আপনার অফিস হতেপারে আপনার গ্রামের বাড়ি, শহরের বাসা এমন কি কোন সমুদ্র সৈকত| অনেকের ধারনা একটা কম্পিউটার আর ইন্টারনেট কানেকশন থাকলে-ই online  থেকে টাকা আয় শুরু করে দেওয়া যায়| এমন ভাবাটা স্বাভাবিক নতুনদের জন্যে, কিন্তু বাস্তবতা সম্পূর্ণ ভিন্ন| অনলাইনে উপার্জন সম্ভব হবে নিজেকে কোন বিশেষ পেশায় দক্ষ  হিশেবে গোড়ে তোলার মাধ্যমে|

ফ্রীলান্সিং কোন রকেট সায়েঞ্চ না, ফ্রীলেন্সার হওয়ার জন্যে আপনাকে কম্পিউটার এর জাহাজ ও হতে হবে না | আপনি যে বিষয় টি ভালো জানেন সেইটা নিয়াই আপনি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করে দিতে পারেন| এইটা শিখার জন্যে কোন বেক্তি বা প্রতিষ্ঠান এর নিকট জেতে হবেনা, বাহারি বিজ্ঞাপন এর ফাঁদে পড়ে বেয় করতে হবেনা নগদ অর্থ-কড়ি | অনলাইনে আপনার জন্যে রয়েছে হাজারো তথ্য আর টিওটোরিয়ালের ভাণ্ডার| আপনি আপনার পছন্ধের  পেশায় নিজেকে যোগ্য করে তুলতে পারেন, ভিডিও টিওটোরিয়াল আর ব্লগ এর মাধ্যমে| ব্লগ আর  টিওটোরিয়ালকে অনুপ্রেরণা হিশাবে নিয়ে নিজেকে করতে হবে স্কিল্ড,আর সেইটা শিখা ও রাতারাতি সম্ভব না, এর জন্যে থাকতে হবে প্রচণ্ড ইচ্ছা শক্তি| স্মরণ রাখতে হব অন্যের পকেটের টাকা নিজের পকেটে আনতে হলে সেইটার উত্তম উপায় আপনার জানতে হবে|

শরণ রাখা জরুরি, আপনি আপনার কর্ম দক্ষতা দিয়ে যে উপার্জন  করবেন সেটা-ই মুক্ত পেশা| কোন অনলাইন ওয়েবসাইট-এ ক্লিক করে টাকা উপার্জন এর ফাঁদে পা দিবেন না, আপনাকে বলা হবে এইটাই দ্রুত ও সহজ উপায়ে ফ্রীলেন্সার হওয়ার পথ, তবে সত্য হচ্ছে এইটা পুরোটাই  প্রতারণা, আমি নিজে ও এই প্রতারণার শিকার হয়েছিয়ালাম প্রথম দিকে, তাই আমি আপনাকে আগেই সতর্ক করে রাখতে চাই জেন এই পথে পা না বাড়ন, যা শুধু আপনার মূল্যবান সময় নষ্টই করবে| নিজেই ভেবে দাখুন, আপনি কোন কিছু করছেন না কিন্তু তারা আপনাকে টাকা দিবে, বিষয় টা কেমন না? তার পর ও ভেবে নিলাম তারা টাকা দিবে, কিন্তু কতদিন? ক্লিক করে কি আপনি কিছু শিখতে পারছেন? কোন বাক্তিগত যোগ্যতা বাড়ছে? অবশই না| সুতরাং এমন কিছু করুন যা আপনার পরিশ্রম দিয়া টাকা উপার্জন করার দার উন্মোচন করে দিবে|

আমি আমার পরবর্তী আর্টিকেলে কোন কোন পেশায় ফ্রীলেন্সার হিশাবে আপনি নিজেকে বিশ্বের দরবারে পরিচয় করিয়ে দিতে পারেন|

কোন প্রশ্ন থাকলে বা মতামত জানাতে কমেন্ট করতে ভুলবেন না 🙂

পোস্টটি সম্পর্কে আপনার মতামত নিচের কমেন্ট বক্সে জানান

0 Comments

Related Posts

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of