fbpx
Creative Clan ব্লগ গ্রাফিক ডিজাইন আপনি যে কারনে ডিজাইনার হতে পারবেন না (Case Study)
যে কারনে আপনি ডিজাইনার হতে পারবেন না

আপনি যে কারনে ডিজাইনার হতে পারবেন না (Case Study)

যে কারনে আপনি ডিজাইনার হতে পারবেন না

আপনি ডিজাইনার না হওয়ার প্রধান এবং মূল কারণ আপনার ধৈর্য নেই, এবং আপনি এই পোস্টের লেখার পরিমাণ দেখে ভয় পাচ্ছেন…

ডিজাইনার হিসাবে আমার বয়স এরাউন্ড ৯ বছর, আর ফটোশপ বা ইলাস্ট্রেটর নিয়ে কাজ শিখতে শুরু করেছি ১২+ বছর হল। ফটোশপে বা ইলাস্ট্রেটরে যা করা সম্ভব তার ২% ও শেখা হয় নাই এই দীর্ঘ সময় জুড়ে। প্রতিদিনই শিখছি…

তবে এখন পর্যন্ত যতটুকু শিখেছি সেই জ্ঞান দিয়ে আমি সামান্য কিছু কেটাগরীতে নিজেকে একটা ভালো লেভেলে নিয়ে এসেছি, যার ফলে আমি ক্লায়েন্টের চাহিদা বুঝতে পারি এবং সে অনুযায়ী কাজ ডেলিভারি দিতে পারি। ডিজাইনার হিসাবে এতটুকুইতো চাওয়া। তাইনা?

তবে ডিজাইনের শিক্ষক হিসাবে আমার ২ বছর হতে চললো। ২০১৭ সালের ১৪ই এপ্রিল আমি ক্রিয়েটিভ ক্লেনের মাধ্যমে ফটোশপ প্রো নামে অনলাইনভিত্তিক ডিজাইন কোর্স চালু করার ঘোষণা করি। পাবলিশ হওয়ার আগেই ৩০+ স্টুডেন্ট প্রিঅর্ডার করে এবং এখন পর্যন্ত ৫৯০+ কোর্স সেল হয়েছে।

এবং পরবর্তীতে গ্রাফিক প্রো কোর্স এর মধ্য দিয়ে ৩০০ সদস্যকে প্রিমিয়াম গ্রুপের মাধ্যমে সরাসরি প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছি। সুতরাং আমার প্রশিক্ষণ স্টাইল শুধু মাত্র ডিভিডি বিক্রি করার মধ্যে সীমাবদ্ধ না হওয়ায় ফলোয়ারদের সাথে সরাসরি ইন্টারাক্ট করতে পেরেছি। তাদের রিড করতে পেরেছি। তাদের সফলতা এবং পিছিয়ে পড়ার কারণ অনুধাবন করতে পেরেছি।

শিক্ষক হিসাবে আমার অভিজ্ঞতা আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম 🙂

যে কারনে তারা ডিজাইনার হতে পারে না বা পিছিয়ে পড়ে

যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একটি ব্যাচের সবাই সফল হয় না, কেউ সরকারি চাকরি পায়, কেউ ভালো প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে চাকরি পায়, কেউ বিদেশ চলে যায় এবং কেউ কেউ বেকার থাকে। ডিজাইন শিখার বেলায় ও তাই, যত ভালো প্রতিষ্ঠান ই হোক বা শিক্ষা পদ্ধতি যত ভালোই হোক সবাই সফল হয় না। যেসব কারনে সফল হয় না তা নিম্নরূপঃ

  • যারা অল্পতেই হতাশ এবং দিশে হারা, তারা ডিজাইনার হতে পারেনা। কারন সে ডিজাইন শিক্ষার প্রথম ক্লাশে গিয়ে বা ডিজাইনের টিউটোরিয়াল ২-৪ টা দেখে অথবা দেখার আগেই মনে করে আমাকে দিয়ে এইসব হবে না।
  • চাকুরি চলে যাওয়া বা চাকরি ছেড়ে দেওয়া লোক জন ডিজাইনার হতে পারেনা। কারন হঠাৎ করে তার ডেইলি রুটিন পরিবর্তন হয়ে যায়। সে নিজেকে সবার সাথে তুলনা করতে শুরু করে এবং নিজেকে ছোট ভাবতে শুরু করে। কেউ কেউ অর্থ কষ্টে পড়ে। এই ২ টা বিষয় তাকে এগিয়ে যেতে দেয় না।
  • অমনোযোগী ডোন্ট কেয়ার মেন্টালিটি , আমি আমার অনেক স্টুডেন্টদের দেখেছি তারা আমার নির্দেশনা মোটেই ফলো করছে না। অথচ আমি তাকে নিয়মিত লাইভ ক্লাশে, ভিডিও লেসনে এবং আর্টিকেল আকারে বার বার তার দূর্বলতা গুলো দেখিয়ে দিচ্ছি।
  • অধৈর্য, অনেকে আছেন সময় দিতেই চান না, কিন্ত ভালো ডিজাইনার হতে হলে প্রবল ইচ্ছা এবং ধৈর্য নিয়ে কাজ চালিয়ে যেতে হয়। এটা একটা দীর্ঘ সময় জুড়ে। হতে পারে ৩ মাস ৬ মাস এমনকি বছরের পর বছর।
  • শুধু মাত্র ফ্রিল্যান্সিংকেই ডিজাইনারদের এক মাত্র ভবিষ্যত মনে করা। অনেকে মনে করেন দেশে ডিজাইনারদের কোন মূল্য নেই অথচ অনেক দেশীয় প্রতিষ্ঠানে ডিজাইনার কোটা খালি থেকে যাচ্ছে।
  • ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার কে অনেক কমপিটিটিভ ভেবে নিজেকে সেই প্রতিযোগীতার অনুপোযোগী মনে করা। বা ভবিষ্যতে এত বেশি ডিজাইনার হবে যে ক্লায়েন্ট থেকে ডিজাইনার বেশি থাকবে এমন বাজে চিন্তা করা। এমন লোক ডিজাইনে কিংবা যে কোন কাজেই সফল হওয়ার সম্ভাবনা কম।

যে ডিজাইনার হয়েছে, এসব কারনে হয়েছে

  • তার মধ্যে শিখার আগ্রহ প্রবল, সে কাজ শিখার আগেই ডিজাইনারদের মাসিক সেলারি নিয়ে চিন্তিত ছিলো না।
  • সে ডিজাইনকে শুধুমাত্র শিক্ষার একটা বিষয় মনে করেছে, যেমন সে সপ্তম শ্রেনীতে বীজগণিত কিংবা ইলিশ মাছের বৈজ্ঞানিক নাম শিখেছে।
  • সে লেখা পড়ার পাশাপাশি কিংবা তার বর্তমান জব না ছেড়ে জবের পাশাপাশি সামান্য সময় বাট নিয়মিত ডিজাইন প্রাকটিস করেছে। এ কারনে তার শিখার প্রোগ্রেস জব ছেড়ে দেওয়া কিংবা বেকার লোকের থেকে ভালো। কারন সে অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি কনফিডেন্ট । এমনকি আমার প্রবাসী স্টুডেন্ট আমার টিমের সবথেকে ভালো ডিজাইন করতে পারে।
  • সে দীর্ঘদিন যাবৎ ডিজাইনের সাথে লেগে আছে। কেউ কেউ আমার কোর্স নেওয়ার আগেও সে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কোর্স করেছে কিংবা ইউটিউবে বেসিক বিষয় গুলো নিয়মিত শিখার চেষ্টা করে যাচ্ছিলো
  • ডিজাইন শিক্ষার জন্য সে সময় এবং টাকা দুটোই ব্যয় করেছে
  • সে তার মেন্টরের নির্দেশনা গুলো শুনেছে, তার দূর্বলতা গুলো নোট করে তার ডেস্কের সামনে স্টিকারের মত লাগিয়েছে এবং তা দেখে নিয়মিত তার ভুলগুলো সুধরানোর চেষ্টা করেছে
  • সে নিজেকে সেরা ডিজাইনার না ভেবে তার থেকে সিনিয়র ডিজাইনারদের ডিজাইন নিয়মিত ফলো করেছে এবং সেগুল থেকে ইন্সপারেশন নিচ্ছে নতুন নতুন আইডিয়ার জন্য ফলো করেছে
  • আমার যে স্টুডিন্ট ফ্রিল্যান্সিংকে ভবিষ্যত মনেকরে ডিজাইন শিখা শুরু করেছিলো সে সুযোগ পেয়েই একটি দেশিয় ডিজাইন হাউজে জব পেয়ে সানন্দে জয়েন করেছে এবং এই প্রতিষ্ঠানে থেকেই সে তার ডিজাইন দক্ষতা এগিয়ে নিচ্ছে।
  • সে ডিজানার হিসাবে অর্থ আয় শুরু করেও নতুন নতুন স্কিল ডেভেলপের আগ্রহ নিয়ে নিয়মিত টিউটোরিয়াল দেখে
  • সে তার শিক্ষকে যথেষ্ট ভালোবাসে এবং শ্রদ্ধা করে। যার ফলে সে তার শিক্ষা এবং শিক্ষককে খুব আপন মনে করেছে।

আপনার প্রতি আমার অনুরোধ

আপনি যাদি ডিজাইনার হতে চান, দিন রাত এটা নিয়ে পড়ে থাকবেন না। আপনি আপনার জব বা লেখাপড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকুন। ডিজাইনকে শিখার বিষয় হিসাবেই ট্রিট করবেন। রুটি রুজির একমাত্র অবলম্বন হিসাবে নয়।

শুধু মাত্র ইউটিউব কিংবা পাইরেটেড ভিডিডি এর উপর নির্ভর করবেন না। আপনার একজন মেন্টর প্রয়োজন, সেটা হতে পারে আপনার এলাকার কোন ডিজাইনার বড় ভাই বা কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষক যে আপনার ভুল সুধরে দিবে। গাইডলাইন দিবে, রিয়েল প্রজেক্টে কিভাবে কাজ করতে হয় তা শিখাবে।

নিজে একা একা ডিজাইনার হওয়া প্রায় অসম্ভব! ভালো ডিজাইনার হতে হলে আপনাকে ট্রেইনি ডিজাইনার হিসাবে যে কোন প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করতে হবে। কিংবা আপনি বিভিন্ন মার্কেট প্লেসে ডিজাইন কন্টেস্টে জয়েন করতে পারেন। তবে আপনার ডিজাইনের মান জঘন্য হলে ক্লায়েন্ট ফিডব্যাক পাবেননা এমনকি আপনার একাউন্ট সাপপেন্ড হবে।

শুধু মাত্র ডিজাইন ভালো পারলেই হবে না, আপনার কমিউনিকেশন স্কিল ও ভালো হতে হবে। সুতরাং ডিজাইন শিখার পাশা পাশি আপনি আমার ফ্রি ইংলিশ কোর্সটি ফলো করুন। ইচ্ছা থাকলে এবং নির্দেশনা অনুযায়ী চেষ্টা করলে আপনি অল্পদিনেই জিরো থেকে হিরো হতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সার হিসাবে ভবিষ্যত গড়তে হলে এবং যে কোন মার্কেটপ্লেসে প্রোফাইল করার আগে অবশ্যই আমার ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ক এই ফ্রি কোর্সটি সম্পূর্ণ করুন।

আপনাকে অভিনন্দন! আপনি এই বিশাল পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়েছেন! আপনি অবশ্যই ধৈর্যশীলদের একজন এবং আমি আপনার সফল ভবিষ্যত দেখতে পাচ্ছি!

যে কোন প্রশ্ন বা মতামতের জন্য আপনি আমাদের গ্রুপে পোস্ট করুন!

আপনার শুভ কামনায়
আবু নাছের, অথর, ক্রিয়েটিভ ক্লেন

অন্য যে পোস্টগুলো আপনার পড়া প্রয়োজন

পোস্টটি সম্পর্কে আপনার মতামত নিচের কমেন্ট বক্সে জানান

Related Posts