fbpx
Creative Clan ব্লগ Uncategorized পোর্টফলিওতে কি ধরনের ডিজাইন রাখবেন?
পোর্টফলিওতে কি ধরনের ডিজাইন রাখবেন?

পোর্টফলিওতে কি ধরনের ডিজাইন রাখবেন?

পোর্টফলিও শব্দটা যারা ডিজাইন নিয়ে কাজ করেন তাদের কাছে খুব বেশি পরিচিত। আপনি কি ধরনের ডিজাইন করেন, আপনি কি কি ডিজাইন করতে পারেন, আপনার ডিজাইনের কোয়ালিটি কেমন ইত্যাদি সব কিছুই আপনার পোর্টফলিও দেখে বুঝে নেয়া যায়। এটা অনেকটা আপনার কাজের এক্সপেরিয়েন্স শো করে। যে কেউ আপনার পোর্টফলিও দেখেই সহজেই বুঝে নিতে পারবে আপনি কি রকম ভাল বা এক্সপার্ট বা কতটা ক্রিয়েটিভ ডিজাইনার।


এখন আপনি প্রশ্ন করতে পারেন যে পোর্টফলিও কোথায় কিভাবে বানাব? 🧐
সেটার জন্য Behance, Flickr, dribbble ইত্যাদি বিভিন্ন ওয়েবসাইট রয়েছে। এখানে আপনি নিজের নামে সুন্দর করে একটি আইডি ওপেন করে যত ইচ্ছা খুশি ডিজাইন আপলোড করতে পারেন। তবে সেই ডিজাইনগুলো অবশ্যই মান সম্মত হতে হবে। তাছাড়া আপনি নিজের জন্য পার্সোনাল ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করেও সেটা আপনার পোর্টফলিও হিসেবে ব্যাবহার করতে পারেন।


আরেকটা বিষয় যেটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ, যে ডিজাইন গুলো আপনি আপনার পোর্টফলিওতে রাখবেন সেই ডিজাইনগুলো অবশ্যই অবশ্যই আপনার নিজের করা ডিজাইন হতে হবে। অন্য কারো ডিজাইন কপি করে সেটা নিজের নামে পেস্ট করে ব্যাবহার কখনোই করবেন না। কারন পৃথিবীটা খুব ছোট। আপনি অন্য কারো ডিজাইন চুরি করে নিজের নামে চালাবেন, সেটা আজ বা কাল ধরা খাবেনই। সেটা নিয়ে সন্দেহও নাই। যখন ধরা খাবেন তখন আম আর ছালা সব এক সাথে যাবে। সুতরাং সাবধান। আমরা বাঙ্গালিরা তো আবার চুরিতে ওস্তাদ। এবং এই ওস্তাদগিরি অন্য সব জায়গার মতো ডিজাইন খাতেও আমরা বিশাল ভাবে চালাই।


ডিজাইন শিখার ক্ষেত্রে শুরুতে ডিজাইন কনসেপ্ট বুঝা, কালার কম্বিনেশন শিখা, ডিজাইন লেআউট সম্পর্কে জানার জন্য আমরা অনেক অনেক ডিজাইন কপি করি বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে। কিন্তু অনেকে জেনে বা না জেনে সেই কপি করা ডিজাইন গুলোই নিজের পোর্টফলিওতে দিয়ে রাখেন। এটা সম্পূর্ণ ভুল।


পোর্টফলিও হল আপনার নিজের কাজের শোকেস। সেখানে আপনি অন্যের কাজ দিয়ে রাখলে লাভ হবে না। মানুষ আপনাকে চোর ডিজাইনার ভাববে। অন্যের ডিজাইন নিজের নামে চালায় দেয়া আমার কাছে অনেকটা পাশের বাড়ির ভাবিকে নিজের বৌ বলে পরিচয় দেয়ার মতো মনে হয়।


আপনি আপনার নিজের ক্রিয়েটিভিটি দিয়ে নিজের আইডিয়া নিয়ে যে ডিজাইন গুলো করবেন সেগুলোই পোর্টফলিও তে দিবেন।ডিজাইন রিলেটেড বিভিন্ন গ্রুপে এড থাকার কারনে আমি অনেককেই দেখেছি যারা নিজেকে একজন ভাল মানের ডিজাইনার দাবি করে, অনেকে বলে সে ভাল কাজ পারে কিন্তু অনলাইনে কোন কাজের অর্ডার পাচ্ছে না। এরকম কয়েক জনের পোর্টফলিও দেখতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তারা বলেছে তাদের কোন পোর্টফলিও নাই। এটা শুনে আমি মাননীয় স্পীকার হয়ে গেছিলাম। অনেকে আবার উল্টা জিজ্ঞেস করে, ভাই পোর্টফলিও আবার কি? এটা শুনে আমি আবারও স্পীকার হয়ে গেছিলাম।


আবার যাদের পোর্টফলিও থাকে তাদের অনেকেরটাই দেখলাম Freepic থেকে বিজনেস কার্ড, ফ্লায়ার ইত্যাদির ফ্রি টেম্পলেট গুলো নিজের নামে চালায় দিচ্ছে পোর্টফলিওতে রেখে। যখন একজন ক্লায়েন্ট আপনার পোর্টফলিও তে দেখবে যে আপনি অন্যের জিনিস নিজের নামে চালাচ্ছেন সে কেন আপনাকে কাজ দিবে বলেন তো?


কাজ পেতে হলে আগে নিজেকে ভাল ভাবে তৈরি করুন। নিজেকে দক্ষ করুন। একটি সুন্দর পোর্টফলিও তৈরি করুন। পোর্টফলিও তে আপনে যা যা ডিজাইন পারেন সেই সব ডিজাইনের সব ক্যাটাগরির ১০/২০ টা করে ডিজাইন এড করুন। যেমন- ফ্লায়ার ডিজাইন করবেন। তাহলে আপনি কর্পোরেট ফ্লায়ারের জন্য ১০ টা ডিজাইন, স্পা/ বিউটি পারলারের জন্য ১০ টা ডিজাইন, বিভিন্ন ক্লিনিং সার্ভিসের জন্য আলাদা ভাবে ১০ টা ডিজাইন করেন। একই ভাবে লোগো, পোস্টকার্ড, বিজনেস কার্ড ইত্যাদি আরও যা যা আইটেম আছে সব গুলোর জন্য এরকম ক্যাটাগরি অনুযায়ী ডিজাইন করেন। যাতে কোন ক্লায়েন্ট যখন আপনার পোর্টফলিও দেখবে সে যেন বুঝতে পারে যে আসলেই আপনি অনেক কাজ পারেন এবং খুব ভাল মতোই পারেন। তবে শর্ত একটাই..। কপি ডিজাইন চলবে না। নিজের করা ডিজাইন হতে হবে।


আমি নিজেও নতুন যখন কাজ শুরু করি তখন ফাইভারে প্রথম দিকে একবার একটা বায়ার ইনবক্স করেছিল। তার একটা পার্টি ফ্লায়ার ডিজাইন দরকার এবং সে আমার কাছে আমার কাজের স্যাম্পল দেখতে চেয়েছিল। কিন্তু তখন আমার পোর্টফলিওতে সেরকম কোন পার্টি ফ্লায়ার ডিজাইন ছিল না। বায়ার কে দেখাতে পারিনি এবং সেই অর্ডারটাও পাই নাই। মিষ্টি মধুর কথা দিয়ে আমার কনফিডেন্স লেভেল বুঝিয়েও ক্লায়েন্টের থেকে অর্ডার টা নিতে পারিনি। তখন বুঝতে পেরেছিলাম যে পোর্টফলিওতে সব ধরনের ডিজাইন রাখা কতটা জরুরি। শুধু কথায় চিরে ভেজানো অনেক কঠিন ডিজাইনের ক্ষেত্রে।


আপনি যখন কোথাও কাজের জন্য কোন ক্লায়েন্টকে ম্যাসেজ দিবেন, সাথে আপনার পোর্টফলিও লিঙ্কটাও দিয়ে দিবেন। তখন ক্লায়েন্ট সেটা দেখে আপনার কাজের দক্ষতা বুঝবে।


সব কথার শেষ কথা…সুন্দর সুন্দর ডিজাইন করেন, পোর্টফলিও তৈরি করেন, চুরি করা বাদ দেন। আগে হোক আর পরে হোক, কষ্ট করলে সফলতা আসবেই। কারো জলদি আসে, কারো টা দেরিতে।


সব কিছু আমার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে লেখা। ভুল থাকাটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। কমেন্ট বক্স তো খোলাই আছে…লিখতে পারেন! ভাল লাগলে শেয়ার করতে পারেন যাতে অন্যরাও নতুন কিছু জানতে পারে, শিখতে পারে।


Author: Mahmudul Hasan Mahmud

0/5 (0 Reviews)

0 Comments

Related Posts

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of
How would like to contact us?